কর ফাঁকি দিচ্ছে দেড় লাখের বেশি কোম্পানি

কর ফাঁকি দিচ্ছে দেড় লাখের বেশি কোম্পানি

নিউজ ডেস্ক:
ভুয়া অডিট রিপোর্ট দাখিলসহ নানা উপায়ে কর ফাঁকি দেয়া এক লাখ ৬০ হাজার কোম্পানিকে শনাক্ত করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া শুরু হচ্ছে নভেম্বর থেকেই। অনিয়মে জড়িত বেশকিছু কোম্পানি ও পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতিও নিচ্ছে এনবিআর।

করফাঁকি দেয়া কোম্পানি শনাক্তে ২৮ আগস্ট টাস্কফোর্স গঠন করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআরের গোয়েন্দা সংস্থা সিআইসি। তাদের এ কাজে সহযোগিতা নিতে বলা হয় রেজিস্টার অব জয়েন্ট স্টক- আরজেএসসি ও হিসাববিদদের সংগঠন আইসিএবির।

এরই মধ্যে তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণে গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন, এক লাখ ৭৭ হাজার নিবন্ধিত পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির মধ্যে ইটিআইএন আছে মাত্র ৭৮ হাজারের। এর মধ্যে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে রিটার্ন জমা দিয়েছে মাত্র ২৮ হাজার কোম্পানি। আবার এদের প্রায় ১২ হাজারই জমা দিয়েছে ভুয়া অডিট রিপোর্ট।

এর কারণ অনুসন্ধানে বেশকিছু কোম্পানিকে তদন্তের আওতায় আনছেন গোয়েন্দারা। এদের বিরুদ্ধে পরে মামলা করা হবে। এনবিআরের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন ব্যবসায়ী নেতারা।

এদিকে ভুয়া অডিট রিপোর্ট শনাক্তে ডকুমেন্টস ভেরিফিকেশন সিস্টেম গড়ে তুলছে হিসাববিদদের সংগঠন- আইসিএবি। এটি ব্যবহারে চলতি মাসেই হতে পারে চুক্তি। আইসিএবি নেতারা বলছেন, অনুমোদিত প্রতিটি অডিট রিপোর্টে থাকবে একটি বিশেষ নম্বর। যা দিয়ে অনলাইনে নিশ্চিত হওয়া যাবে রিপোর্টটি জাল কি-না।

এনবিআরে কর্মকর্তারা জানান, এসব পদক্ষেপে চলতি অর্থবছরই রাজস্ব বাড়বে অন্তত পাঁচশ কোটি টাকা। নিবন্ধন ছাড়াবে লাখের বেশি।

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!