জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় গুলশানের নিরাপত্তা জোরদার

জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় গুলশানের নিরাপত্তা জোরদার

নিজস্ব প্রতিবেদক :  পবিত্র ঈদুল আজহার আগে সম্ভাব্য জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটকে সতর্কবার্তা দিয়েছে পুলিশ সদরদফতর। আর এরপরই রাজধানীর গুলশানে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সোমবার বিকেল থেকে গুলশানের বিভিন্ন সড়ক ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। নিরাপত্তা বাড়ানো হয় শপিংমল, আবাসিক এলাকা ও কূটনীতিক পাড়ায়।

সম্প্রতি পুলিশ সদরদফতরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি অপারেশনস-১) সাইদ তারিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা করা হয়। চিঠিতে পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটকে সতর্ক অবস্থানে থাকতে বলা হয়েছে। চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) আদলে গঠিত নব্য জেএমবি বাংলাদেশে হত্যাকাণ্ড, নাশকতা অথবা ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড চালানোর পরিকল্পনা করছে।

চিঠিতে বলা হয়, ‘জাতীয়-বৈশ্বিক প্রেক্ষাপট ও গোয়েন্দা তথ্য পর্যালোচনায় জানা গেছে, তথাকথিত আইএস আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে কথিত ‘বেঙ্গল উলায়াত’ ঘোষণার উদ্যোগ নিয়েছে। আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক ঘটনাপ্রবাহ বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, সাধারণত বড় ধরনের সন্ত্রাসী হামলার মাধ্যমেই ‘বেঙ্গল উলায়াত’ ঘোষণা করা হয়। এই অবস্থায় আইএসের দেশীয় অনুসারী নব্য জেএমবির সদস্যরা হামলা পরিচালনাসহ যেকোনো জঙ্গি হামলা বা বোমা হামলার মাধ্যমে হত্যাকাণ্ড সংঘটনসহ নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড করতে পারে। তাই পুলিশের সকল ইউনিটকে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করে যথাযথ নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা আবশ্যক।

চিঠিতে গোয়েন্দা তথ্যের বরাতে হামলার টার্গেট হিসেবে পুলিশ (পুলিশের কোনো টিম, স্থাপনা বা যানবাহন), বিমানবন্দর, তিন দেশের দূতাবাস ভবন বা দূতাবাস সংশ্লিষ্ট বিশেষ ব্যক্তি, অথবা শিয়া-আহমদিয়া উপাসনালয়, মাজারকেন্দ্রিক মসজিদ, চার্চ, প্যাগোডা, মন্দির টার্গেট করা হতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। হামলার সম্ভাব্য দিন-তারিখ উল্লেখ না থাকলেও হামলার সময় ‘সকাল ৬-৭টা অথবা সন্ধ্যা ৭-১০টায়’ হতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...
  • 71
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!