টাঙ্গাইল-আরিচা-মাওয়া মেরিন ড্রাইভ হতে পারে ভবিষ্যতের পর্যটন মাইলফলক

টাঙ্গাইল-আরিচা-মাওয়া মেরিন ড্রাইভ হতে পারে ভবিষ্যতের পর্যটন মাইলফলক

অর্থ আদালত ডেস্ক:
কক্সবাজার মেরিন ড্রাইভ রোডের আদলে দেশের ভেতরেও একটি রোড আমরা পেতে পারি যার মাধ্যমে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির  মাইলফলক হতে পারে যেখানে শুধু একটু বড় করে ভাবতে হবে।

পদ্মা সেতুর পার হয়ে যে সকল গাড়ি দেশের দক্ষিনাঞ্চল হয়ে উত্তর বঙ্গে যাবে তাদের জন্য যেমন সাশ্রয় হবে তেমনই নদী ভাঙ্গন রোধ হবে এবং কোটি কোটি মানুষের ভিড়ে মুখরিত থাকবে এই পথ। পদ্মা সেতু থেকে যমুনা সেতুর একটি মিলন পথ বানাতে পারলে যার মধ্য দিয়ে ব্যাপক নদী ভাঙ্গন সমস্যার সমাধান এবং ভাঙ্গনের ক্ষতির বিশাল ফসলি জমি রক্ষা পাবে সেই সাথে কৃষিতে ব্যাপক উন্নতি হবে যা আগামী দিনের বাড়তি জনসংখ্যার খাদ্য চাহিদা পুরন করবে।

এই রোডের আশেপাশে আরও ব্যাপকভাবে শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে।  এমন পদক্ষেপ নিলে নদীর উভয় পারের তথা দেশের অর্থনৈতিক উন্নতিতে আরও একটা মাইলফলক হয়ে থাকবে। শহরের উপর দিয়ে রাস্তাগুলোর অপ্রয়োজনীয় চাপ কমবে শিল্পের জন্য পানি অত্যান্ত জরুরি উপাদান তাই পর্যাপ্ত সুবিধার জন্য অতি দ্রুত শিল্পের বিকাশ ঘটবে।

এই রাস্তাটি বানাতে তেমন বড় কোন বাজেট লাগবে মনে হয় না এখানে অল্প কিছু জায়গা ফাকা রয়েছে যেখানে নদী শাসন করা হয়নি এবং ব্যপক ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে, যমুনা সেতুর ভাটিতে আনমানিক ৩০ কিলোমিটার হতে পারে, আমি মনে করি এই ৩০ কিলোমিটার যমুনা সেতু করার সময় শাসনের আওতায় ছিল সেটি করা হয়নি যা এই অঞ্চলের মানুষের উপর চরম অন্যায় করা হয়েছে। এ অঞ্চলের মানুষের ৫০ বছরের একটি দাবিও ছিলো যা আজও পুরন হয় নি।

মান্নান সাহেবের পরে আরও ৩ বার আওয়ামী লীগের সরকার গঠিত হয়েছে কিন্তু এই সমস্যার ব্যাপারে জোরালো আলোকপাত করার মত কোন নেতা দেখিনি তাই বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অবগত থাকা সত্ত্বেও তুলে ধরলাম। নদী শাসন এবং অন্তত যমুনা সেতু থেকে পাটুরিয়া/আরিচা হয়ে পদ্মা সেতু পর্যন্ত রাস্তাটি হলে দেশের ব্যপক উন্নয়ন হবে।

আমাদের আশা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই প্রকল্পটি গ্রহণ করবেন কারন দেশের মানুষের ভরসার জায়গা একমাত্র নেত্রী মানবতার মা বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য তনয়া বিশ্বের আলোচিত মুখ জননেত্রী শেখ হাসিনা। যার নাম মানুষের অন্তরে গ্রথিত সকল মানুষের হৃদয়ে যার কারণে ভিন্নমতের লোকেরাও আপনার প্রতি আস্থাশীল। কাজেই আপনার দিকে সবাই তাকিয়ে থাকি। এদেশের মঙ্গা দূরীভূত  হয়েছে, ছিটমহল সমস্যার সমাধান হয়েছে, সমুদ্র সীমার সমাধান, রেহিঙ্গা সমস্যার সমাধানের পথ সহ পদ্মাসেতুর মতো বড় কাজ শুধু আপনিই করতে পারেন।

পশ্চিম টাঙ্গাইলের মানুষের ভোগান্তি লাগোবে বার বার সাধারণ মানুষের মানব বন্ধন, মিছিল চলতেই আছে কিন্তু যারা ক্ষমতা চান বা ক্ষমতা ভোগ করছেন তাদের ব্যর্থতা বলতে চাইনা কিন্তু আরও যোগ্য এবং পশ্চিম টাঙ্গাইলের মাটি মানুষের জন্য একজন অধিক যোগ্য নেতা চাই, এটা চর এলাকার ৪ লক্ষ মানুষের দীর্ঘদিনের আকাংখা।

লেখকঃ মোল্লা মোঃ জমির উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক (আসাজো), কেন্দ্রীয় কমিটি।

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...
  • 103
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!