টিকটক করায় বাগেরহাটে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

টিকটক করায় বাগেরহাটে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ
বাগেরহাটে টিকটক ও লাইকিতে ছবি ও ভিডিও পোস্ট করা নিয়ে পারিবারিক কলহের জেরে শ্রাবণী আক্তার সুমা (১৯) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে তার স্বামী। শনিবার (৮ মে) রাতে বাগেরহাট শহরের দশানী উত্তরপাড়া এলাকায় এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।

পরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঘাতক স্বামী আব্দুল্লাহ আল নাইম ওরফে শান্ত (২৩) বাগেরহাট মডেল থানায় আত্মসমর্পন করে। পুলিশ সুমার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

আত্মসমর্পণকারী আব্দুল্লাহ আল নাইম ওরফে শান্ত দশানী উত্তরপাড়া এলাকার বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য গোলাম মোহাম্মদের ছেলে। প্রেমের সম্পর্কের মাধ্যমে ২০১৯ সালে নাইম ও সোমার বিয়ে হয়েছিল। নিহত সুমা কাড়াপাড়া ইউনিয়নের সিংড়াই গ্রামের বাসিন্দা করিম বক্সের মেয়ে। সুমা বাগেরহাট সরকারি পিসি কলেজে ইংরেজী বিভাগে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে পড়াশুনা করতেন।


পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, শান্ত ঢাকার একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। সম্প্রতি করোনা পরিস্থিতিতে চাকরি চলে গেলে তিনি বাড়িতে ফিরে আসেন। বাড়িতে আসার কিছুদিন পর শান্ত ও তাঁর স্ত্রী সুমার মধ্যে টিকটক করা নিয়ে ঝগড়া হয়। পরে সুমা রাগ করে বাবার বাড়িতে চলে যান।

নাইমের বাবা-মা ঢাকায় থাকায় বাড়িতে শুধু তারা দুজন ছিল। বাড়িতে কেউ না থাকায় শনিবার বিকেলে শান্ত ফোন করে তাঁর স্ত্রীকে বাড়িতে ডেকে নেন। শনিবার মাগরিবের নামাজের পর তাদের মধ্যে আবারও টিকটক নিয়ে ঝগড়া শুরু হয়। এ সময় শান্ত তাঁর স্ত্রী সুমাকে কিল-ঘুষি দিয়ে মারধর করেন। পরে ওড়না দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। এরপর থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন শান্ত।

বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আজিজুল ইসলাম বলেন, আমরা মরদেহ উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি। হত্যাকারী আব্দুল্লাহ আল নাইম ওরফে শান্ত আমাদের হেফাজতে রয়েছে। সে হত্যার দায় ও কারণ পুলিশকে জানিয়েছে। হত্যার সাথে অন্য কোন বিষয় জড়িত আছে কিনা তা আমরা খতিয়ে দেখছি।


পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!