টোল দিয়ে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

টোল দিয়ে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

অর্থ আদালত ডেস্কঃ মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী ফলক ও বঙ্গবন্ধুর ম্যূরাল-১ উন্মোচনের মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  আজ শনিবার (২৫ জুন)  দুপুর ১২টায় সেতু উদ্বোধন করেন তিনি।

সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগ দেন। উদ্বোধন শেষে তিনি ‘জয় বাংলা’ বলে স্লোগান দেন।  পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সুধী সমাবেশে দেশি-বিদেশি অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন। সুধী সমাবেশে অংশগ্রহণ শেষে প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট, স্যুভেনির শিট, উদ্বোধনী খাম ও সিলমোহর প্রকাশ করেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর পাশে ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল, অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান, সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন, সাবেক যোগাযোগ সচিব মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া প্রমুখ।

এরপর প্রধানমন্ত্রী টোল প্লাজায় টোল দিয়ে মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-১ উন্মোচন করেন। উদ্বোধন শেষে প্রধানমন্ত্রী মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্ত থেকে পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে যান। ব্রীজের মাঝ বরারব আসলে একটু বিরতি নিয়ে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী আয়োজিত এক মনোমুগ্ধকর এ্যারোবেটিক প্রদর্শনীর মাধ্যমে ফ্লাইপাস্ট উপভোগ করেন।

তাৎপর্যমণ্ডিত ঐতিহাসিক এই অনুষ্ঠানকে রঙিন করতে বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান, বিবিপি, বিউপি, এনএসডব্লিউসি, এফএডব্লিউসি, পিএসসি জিডি (পি) এর নির্দেশক্রমে বর্ণিল ও মনোজ্ঞ এ ফ্লাইপাস্টের আয়োজন করা হয়। পদ্মাসেতুর এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে মহিমান্বিত করতে জাতীয় পতাকা কে সামনে রেখে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিকৃতি, উদ্বোধনকৃত পদ্মাসেতু ও ‘জয় বাংলা’ ব্যানার নিয়ে এগিয়ে যায় ০৫ টি এমআই-১৭ হেলিকপ্টার। এছাড়াও একটি বেল-২১২ হেলিকপ্টার থেকে অনুষ্ঠানে আগত অতিথিবৃন্দের জন্য লিফলেট বিতরণ করা হয়। সবশেষে, অনুষ্ঠানের আবহের সাথে সামঞ্জস্য রেখে ০৭ টি কে-৮ডব্লিউ এবং ০১ টি মিগ-২৯ বিমান কর্তৃক এক মনোমুগ্ধকর এ্যারোবেটিক প্রদর্শনীর মাধ্যমে ফ্লাইপাস্ট সমাপ্ত হয়।

প্রধানমন্ত্রী এরপর শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী ফলক এবং ম্যুরাল-২ উন্মোচন করেন। এরপর তিনি  শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্ত থেকে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কাঁঠালবাড়ি গিয়ে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় যোগ দেন।

উদ্বোধনের পরের দিন ২৬ জুন ভোর ৬টা থেকে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে। পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে দুই পাশের মহাসড়ক, নদী তীর।

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!