ডাটা অপারেটরদের দিয়ে প্রশিক্ষণ নিতে চান না শিক্ষকরা

ডাটা অপারেটরদের দিয়ে প্রশিক্ষণ নিতে চান না শিক্ষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের (ইউআরসি) ডাটা এন্ট্রি অপারেটরদের ‘সহকারী ইন্সট্রাক্টর’ পদ দিয়ে প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার একটি প্রস্তাব করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। এ প্রস্তাব কার্যকর হলে তারা শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেবেন। তবে তাদের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নিতে চান না শিক্ষকরা।

তারা বলছেন, ডাটা এন্ট্রি অপারেটরের তুলনায় প্রাথমিক শিক্ষকরা পাঁচ গ্রেড ওপরে চাকরি করেন। এ ধরনের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে শিক্ষকদের মান-মর্যাদা ভূলুণ্ঠিত হবে। তাই এই প্রস্তাব বাতিলসহ ৫ দফা দাবি জানিয়েছে ‘বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি।

শনিবার রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে সমিতির নেতারা এ কথা জানান। সংগঠনের সভাপতি মো. আনোয়রুল ইসলাম তোতা দাবিগুলো তুলে ধরেন। এসময় লিখিত বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক মো. গাজীউল হক চৌধুরী।

তাদের দাবিগুলো হলো-প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকদের ১০ম ও প্রধান শিক্ষকদের ৯ম গ্রেড প্রদান, সরাসরি নিয়োগপ্রাপ্ত, প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন বৈষম্য বাতিল, প্রধান শিক্ষকদের টাইমস্কেল জটিলতা নিরসন, পদোন্নতিতে জটিলতা কমানো। এছাড়া এসব দাবিতে আগামী ১৮ মে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি প্রদান করবেন শিক্ষকরা।

শিক্ষকরা জানান, দেশের প্রাথমিক শিক্ষকরা আজ একটি কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর উপজেলা রিসোর্স সেন্টারে কর্মরত ডাটা এন্ট্রি অপারেটরদের ‘সহকারী ইন্সট্রাক্টর’ পদে চলতি দায়িত্ব দেওয়ার একটি প্রস্তাব গণশিক্ষা  মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে। এ নিয়ে প্রাথমিকের শিক্ষকদের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

তারা বলেন, একাডেমিক সুপারভাইজারের পদধারীরা সাধারণত বিএড, এমএড ডিগ্রিধারী হয়ে থাকেন। সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ও সহকারী ইন্সট্রাক্টররা একাডেমিক সুপারভাইজার হিসেবে প্রাথমিক স্কুলের শ্রেণি পাঠদান ও প্রাথমিক শিক্ষকদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণ তত্ত্বাবধান করে থাকেন। অন্যদিকে ডাটা এন্ট্রি অপারেটররা একাডেমিক পদধারী কর্মচারী না। তাই তাদের কোনোভাবেই ‘একাডেমিক ট্রেইনার বা সুপারভাইজারে’ পদে চলতি দায়িত্ব বা পদোন্নতি দেওয়া যাবে না।

ইউআরসি সহকারী ইন্সট্রাক্টর পদে যদি পদোন্নতি দিতে হয়, তাহলে প্রাথমিক শিক্ষকদের মধ্য থেকে আগে পদোন্নতি দিতে হবে বলে জানান শিক্ষক নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি সুব্রত রায়, সিনিয়র সহ-সভাপতি কামরুল হাসান ভুঁইয়া, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক ওয়াদুদ ভুঁইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক জুলফিকার আলী প্রমানিক,  মহিলা সম্পাদক বাঁধন খান পাঠান ববি প্রমুখ।

Loading

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!