দ্বিতীয় ম্যাচেই জয়ের স্বাদ পেলো কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)

দ্বিতীয় ম্যাচেই জয়ের স্বাদ পেলো কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)

স্পোর্টস ডেস্ক:

দ্বিতীয় ম্যাচেই জয়ের স্বাদ পেলো কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। আগের ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করা কেকেআরের কাছে শনিবার কুপোকাৎ সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে দুই ওভার হাতে রেখে কলকাতা ৭ উইকেটে জিতেছে। আট দলের মধ্যে হায়দরাবাদই এখনও পর্যন্ত জয়শূন্য। ওয়ার্নারের দল কোনও কারণে ছন্দ খুঁজে পাচ্ছে না। এসে গেছেন কেন উইলিয়ামসন, তিনি হাল ধরলে যদি ভিন্ন কিছু হয়!

পিচ খারাপ নয়। এমন পিচে ছয় উইকেট হাতে রেখে মাত্র ১৪২ রান, কোনও দলের সঙ্গেই যায় না। ১৪২ রান ৪ উইকেট খুইয়ে আইপিএলের তৃতীয় সর্বনিম্ন রান। দ্বিতীয় ও সর্বনিম্ন রান করা দুটি দলই হেরেছে। টস জিতে যখন প্রথমে ব্যাট করে এত অল্প রান তোলে হায়দরাবাদ, তখনই অনেকে জয়ের আসনে বসিয়ে দিয়েছে কলকাতাকে। অবশ্য কলকাতা আগের ম্যাচের হার থেকে শিক্ষা নিয়ে বেশ পরিকল্পিত বোলিং করেছে। পেসের সঙ্গে ভালো লেংথ-লাইন বজায় রেখে ওপেনিং জুটিটা ভেঙেছেন প্যাট কামিন্স। মাঝের ওভারগুলোতে হায়দরাবাদের নার্ভাস ও মরচে পড়া টপ অর্ডারকে মন্থর হতে বাধ্য করেছেন স্পিনাররা। শেষে এসে চাপ বাড়িয়েছেন আন্দ্রে রাসেল।

হায়দরাবাদের ইনিংসে মনীশ পান্ডে সর্বোচ্চ ৫১ করেছেন ৩৮ বলে। ওয়ার্নারের ৩৬ এসেছে ৩০ বলে, অনভ্যস্ত চার নম্বর পজিশনে ঋদ্ধিমান সাহা ৩১ বলে করেছেন ৩০ রান। ১৪৩ রানের লক্ষ্য সামনে নিয়ে ইয়ন মরগানের সঙ্গে ওপেনার শুভমান গিলের অবিচ্ছিন্ন ৯২ রানের জুটিই জিতিয়ে দিয়েছে কলকাতাকে। ৬২ বলে পাঁচ চার ও দুই ছক্কায় ৭০ রান করে অপরাজিত থাকেন ম্যাচের সেরা গিল। তিন চার ও দুই ছক্কায় ৪২ করতে ২৯ বল খেলেছেন ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মরগান। গিলের পেছনে ও মরগানের আগে দুটি শূন্য উপহার দিয়ে গেছেন ওপেনার সুনীল নারাইন ও অধিনায়ক দিনেশ কার্তিক। কলকাতা অবশ্য তাতে চাপে পড়েনি একটুও।

 

 

 

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!