নলছিটি ছাত্রদলের কমিটি গঠনে লেনদেনের অভিযোগ

নলছিটি ছাত্রদলের কমিটি গঠনে লেনদেনের অভিযোগ

নলছিটি প্রতিনিধি :
ঝালকাঠীর নলছিটি উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে জেলা কমিটির সাথে অর্থ লেনদেনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে নলছিটি উপেজলা কমিটি নিয়ে তৃণমূলের নেতা কর্মীদের মাঝে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন ভাবে অভিযোগ রয়েছে যাদের আহ্বায়ক কমিটিতে রাখা হচ্ছে স্থানীয় রাজনীতির সাথে এদের কোন সম্পৃক্ততা নেই। তাদের কেউ ঢাকায় অথবা অন্য কোন জেলায় বসবাস করেন।

স্থানীয় ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের অভিযোগ ত্যাগী ও যোগ্যদেরকে বাদ দিয়ে অযোগ্যদের স্থান দেয়া হচ্ছে। যারা এতদিন স্থানীয় পর্যায়ে ছাত্রদলের কর্মসুচী বাস্তবায়ন করল তাদেরকে রেখে মনগড়া কোন কমিটি দিলে তা প্রতিহত করা হবে বলেও হুশিয়ারি দেন উপজেলা ছাত্রদলের বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক।

বিএনপির এক কেন্দ্রীয় নেতার ইশারায় এ কমিটি হচ্ছে বলেও গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। অর্থের লেনদেনের মাধ্যমে এসব কমিটিতে ঢাকায় থাকা কোন কর্মীকে নেতৃত্ব দিলে ছাত্রদল তৃনমুল পর্যায়ে দুর্বল সংগঠনে পরিনত হবে বলে মনে করেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি আনিছুর রহমান খান হেলাল।

জানা যায়, সর্বশেষ ২০১৩ সালের ১ নভেম্বরে সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকসহ সুপার ফাইভ কমিটি দীর্ঘ ৭ বছরেও পুর্নাঙ্গ কমিটি দিতে পারেনি। কমিটির সভাপতি পলাশ সজ্জন ও সাধারন সম্পাদক হাসিবুল হাসান সবুজ এখনো সংগঠনের হাল ধরে রয়েছেন।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি সারা বাংলাদেশে কমিটি দেয়ার চেষ্টা করছে যখন, তখন নলছিটি থেকে স্থানীয় তরুন ও ত্যাগী নেতৃত্ব বাছাই করে জেলা কমিটির কাছে সুপারিশ করে বর্তমান কমিটি। উপজেলা বিএনপিও চাইছে স্থানীয় যোগ্যদের দিয়ে আহ্বায়ক কমিটি হোক। কিন্তু ঢাকায় থাকা কয়েক জন বিএনপির নেতারা তাদের পছন্দ মত নেতৃত্ব নির্বাচন করতে চাইছেন অযোগ্যদের দিয়ে জেলা ছাত্রদলকে প্রভাবিত করে কমিটি দেয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

বর্তমান কমিটির সাধারন সম্পাদক হাসিবুল হাসান সবুজ বলেন, ছাত্রদলকে গতিশিল করার জন্য যারা স্থানীয় রাজনীতিতে সম্পৃক্ত তাদের দিয়ে কমিটি দিতে হবে তা নাহলে চাপিয়ে দেয়া কমিটি কেউ মেনে নেবে না। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাংগঠনিক অভিভাবক জনাব তারেক রহমানের নির্দেশনা অনুযায়ী কমিটি হতে হবে।

ঝালকাঠী জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আরিফুর রহমান বলেন, আপাতত ২১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি হবে যাতে ত্যাগী ও  যোগ্যরা স্থান পাবেন। অনেকে না জেনে হয়তো নানা কথা বলছেন, মিঃ আরিফ স্থানীয় নেতা কর্মীদের এসবে কান না দেয়ার জন্য আহ্বান জানান।

 

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!