নৌকার প্রচারণা করায় যুবলীগ নেতাকে মারধর

নৌকার প্রচারণা করায় যুবলীগ নেতাকে মারধর

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রায়পুর উপজেলার উত্তর চরবংশী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মোঃ আমজাদ হোসেনের(২৫) উপর অতর্কিত হামলা এবং শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে জখম করা হয়েছে।

আমজাদ হোসেনের স্বজনদের দাবি, রায়পুর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন হাওলাদার গতবছরের উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্রপ্রার্থী হিসেবে হুন্ডা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করেন। কিন্তু আমজাদ হোসেন নৌকার প্রার্থী মামুনুর রশীদের(বর্তমান রায়পুর উপজেলার চেয়ারম্যান) পক্ষে প্রচারনা করেন এবং ভোট চেয়েছেন এলাকাবাসীর কাছে। তারই জের ধরে,পূর্বের ক্ষোভে আলতাফ হোসেন হাওলাদারের সমর্থকরা তার নির্দেশে আমজাদ’কে একা পেয়ে এমন বর্বোরোচিত হামলা এবং শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ রক্তাক্ত করে।

এদিকে যুবলীগ নেতা আমজাদ এর রক্তাক্ত ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়ে। ঘটনাটি ঘটে ১১জুলাই রোজ শনিবার উত্তর চরবংশী ইউনিয়নের আমজাদের নিজ বাড়ির সামনে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, সাবেক চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন হাওলাদারের সমর্থকরা দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় জুলুমবাজ, নিরীহ মানুষের উপর অত্যাচার এবং প্রভাব বিস্তারসহ নানা বিশৃঙ্খল কাজ করতেছে। তাদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুললে অমানবিক মারধরের স্বীকার হতে হয়।

নাম প্রকাশ করতে অনিচ্ছুক (৫২) বলেন, আলতাফ  হোসেন হাওলাদের একটি বাহিনী আছে যার নেতৃত্ব দেন সুমন হাওলাদার(৩৫) পিতাঃ মৃত জব্বার হাওলাদার। তার হুকুমে নূরে আলম রাহিদ, বাসেদ, এমরান, আওলাদ, বাবু, শাহিন, রুবেল, মনছুর, নাজমুল, কামরুল সহ আরো বেশ কয়েকজন এলাকায় এসব অপকর্ম করে বেড়ান।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে সাবেক এই চেয়ারম্যান মানব পাচারের দায়ে কারাগারে স্হানীয় সংসদ সদস্য পাপুলের(লক্ষ্মীপুর-২) অনুসারী। সাবেক চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন হাওলাদার নৌকার প্রার্থীর বিরোধিতা করার দায়ে জেলা আওয়ামীলীগ থেকে বহিষ্কার হোন। বরিশাল এর মাছ ঘাট, চর দখল ও ভূমি দখল সহ নানান অনিয়মের অভিযোগ আছে সাবেক এই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে।

এদিকে এই ঘটনায় সোমবার (১৩জুলাই) ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা আমজাদ হোসেন (২৫) বাদী হয়ে ১৬জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ৮/১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল জলিল অর্থ আদালত কে জানান, আমজাদ হোসেনের এজহারের প্রেক্ষিতে আসামী একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে(রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত)। আর কয়েকজন জামিনে আছেন। বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...
  • 1
    Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!