বিশ্ববাজারে তেলের বড় ধরনের দরপতন

বিশ্ববাজারে তেলের বড় ধরনের দরপতন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
বিশ্ববাজারে বড় দরপতনের মুখে পড়েছে তেলের দাম। চলতি সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস ২ নভেম্বর, সোমবার বিশ্ববাজারে লেনদেন শুরু হতেই অপরিশোধিত তেলের দাম প্রায় চার শতাংশ পড়ে গেছে।

বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নতুন করে বৃদ্ধি পাওয়া এবং লিবিয়ার তেল উত্তোলন বেড়ে যাওয়ায় এ দরপতন হচ্ছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপ মাঝে কিছুটা কমলেও সম্প্রতি আবার বাড়তে শুরু করেছে। সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে শনাক্তের হার বাড়তে থাকায় ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকায় আবারো অচলাবস্থা তৈরি হচ্ছে।

গত সপ্তাহে শুরু হওয়া দরপতনের ধারা চলতি সপ্তাহের শুরুতেও দেখা দিয়েছে। ইতোমধ্যে প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম ১ দশমিক ৩৬ ডলার কমে ৩৪ দশমিক ৪৭ ডলারে নেমে গেছে।

এতে আজ অপরিশোধিত তেলের দাম কমেছে ৩ দশমিক ৭২ শতাংশ এবং সপ্তাহের ব্যবধানে কমেছে ১০ দশমিক ৭১ শতাংশ। আর মাসের মধ্যে কমেছে ১২ দশমিক ২১ শতাংশ এবং বছরের ব্যবধানে ৪৩ দশমিক ৭৩ শতাংশ দাম কমেছে।

এর আগে ইতিহাসের সর্বোচ্চ দরপতনের কারণে গত ২০ এপ্রিল প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম ঋণাত্মক ৩৭ ডলারের নিচে নেমে যায়। রেকর্ড এই দরপতনের পরেই অবশ্যই তেলের দাম বাড়তে থাকে। এতে রেকর্ড দরপতনের ধকল সামলে প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম ৪০ ডলারের আশপাশে ঘুরপাক খাচ্ছিল। তবে এখন আবার বড় পতনের মুখে পড়েছে বিশ্ব তেলের বাজার।

অপরিশোধিত তেলের পাশাপাশি বড় দরপতন হয়েছে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের। ইতোমধ্যে প্রতি ব্যারেল ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম দশমিক ৭৩ বলার বা ১ দশমিক ৯৫ শতাংশ কমে ৩৬ দশমিক ৭৩ ডলারে নেমে গেছে। এতে সপ্তাহের ব্যবধানে ৯ দশমিক ৩২ শতাংশ এবং মাসের ব্যবধানে ১১ দশমিক ১৪ শতাংশ দাম কমেছে। আর বছরের ব্যবধানে কমেছে ৪৪ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

 

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...
  • 7
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!