ভারতে নভেম্বরে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের শুটিং

ভারতে নভেম্বরে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের শুটিং

বিনোদন ডেস্ক :
গত এপ্রিলে বাংলাদেশে শুটিং শুরু করতে চেয়েছিলেন বলিউড নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ঘিরে নির্মিতব্য এই বায়োপিকের দিকে তাকিয়ে ছিল প্রায় সবাই। তবে শেষ পর্যন্ত করোনার হানায় থমকে যায় কাজ। পরিস্থিতি এখনও অনুকূলে নয়। তবু শুটিংয়ের প্রস্তুতি নিতে চায় টিম বেনেগাল।

জানা গেছে, শিল্পীদেরও এ বিষয়ে প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে। তবে তারা কেউ-ই শুটিংটি নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ। আর বিশ্বস্ত সূত্র বলছে, নভেম্বর থেকে এর দৃশ্যধারণ শুরু হতে যাচ্ছে। কারণ পরবর্তী চার মাসের মধ্যে এর শুটিংসহ সব কাজ শেষ করার লক্ষ্য স্থির করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানালেন, সময়টা বেশি নেই। নতুন বছরের মার্চের মধ্যেই শেষ হবে ছবিটির কাজ।
গতকাল (১৩ অক্টোবর) তার সঙ্গে বাংলাদেশে ভারতের নতুন হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইসামির বৈঠক শেষে এ তথ্য দিয়েছেন মন্ত্রী। সূত্র- বাসস।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে নির্মিতব্য ছবির কাজ মুজিব বর্ষের (১৭ মার্চ ২০২০-১৭ মার্চ ২০২১) মধ্যে সম্পন্ন হবে। বাংলাদেশ ও ভারতীয় নির্মাতারা বিষয়টি এখন দেখভাল করছেন।

বঙ্গবন্ধুর সমগ্র জীবনী নিয়ে ছবিটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এর প্রাথমিক নাম রাখা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু’। এতে বঙ্গবন্ধু চরিত্র অভিনয় করছেন আরিফিন শুভ। জানা যায়, এ তারকাও নভেম্বরে শুটিংয়ে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

অন্যদিকে, গত মার্চের প্রথম সপ্তাহে বিএফডিসি ছবির মোট ৫০ জন অভিনেতা-অভিনেত্রীর নাম প্রকাশ করে।
এর অন্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রগুলোতে অভিনয় করছেন নুসরাত ফারিয়া (শেখ হাসিনা), জান্নাতুল সুমাইয়া (শেখ হাসিনার বড় ভূমিকা), সায়েম সামাদ (সৈয়দ নজরুল ইসলাম), শহীদুল ইসলাম সাচ্চু (এ কে ফজলুল হক), নুসরাত ইমরোজ তিশা (ফজিলাতুন্নেসা), রাইসুল ইসলাম আসাদ (আব্দুল হামিদ খান ভাসানী), গাজী রাকায়েত (আবদুল হামিদ-দাদা), ফেরদৌস আহমেদ (তাজউদ্দীন আহমেদ), তৌকীর আহমেদ (সোহরাওয়ার্দী), সিয়াম আহমেদ (শওকত মিয়া) ও মিশা সওদাগর (জেনারেল আইয়ুব খান)।

তালিকায় বাংলাদেশের শিল্পীরা সংখ্যায় অনেক বেশি হলেও ভারতেরও কয়েকজন অভিনেতা-অভিনেত্রী থাকছেন এতে।
বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ প্রযোজনার এই চলচ্চিত্রটির জন্য বাজেট নির্ধারিত হয়েছে ৩৫ কোটি টাকা। এই বাজেটের ৬০ ভাগ দিচ্ছে বাংলাদেশ ও ৪০ ভাগ ভারত সরকার।

বায়োপিকটি নির্মাণে শ্যাম বেনেগালের সহযোগী পরিচালক হিসেবে কাজ করছেন দয়াল নিহালানি। চিত্রনাট্য করেছেন অতুল তিওয়ারি ও শামা জায়েদি। শিল্প নির্দেশনার দায়িত্ব পেয়েছেন নীতিশ রায়। কস্টিউম ডিরেক্টর হিসেবে আছেন শ্যাম বেনেগালের মেয়ে পিয়া বেনেগাল।

আরও জানা গেছে, এই বায়োপিকে উঠে আসবে বাংলাদেশের অভ্যুদয় থেকে পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের নির্মম ট্র্যাজেডি। তারুণ্য থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং পরবর্তী সময়ের মুজিবের দেখা মিলবে ছবিতে।

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...
  • 11
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!