যুদ্ধের ময়দানে বিশ্বের সবচেয়ে বড় রোবট ট্যাংক আনছে রাশিয়া

যুদ্ধের ময়দানে বিশ্বের সবচেয়ে বড় রোবট ট্যাংক আনছে রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
রাশিয়ার বিশ্ববিখ্যাত বন্দুক নির্মাণকারী সংস্থা কালাশনিকভ এবারে রুশ সেনাবাহিনীর জন্য ২০ টন ওজনের বিশ্বের সবচেয়ে বড় রোবট ট্যাংক তৈরি করবে। শুধু তাই নয়, যাতে যুদ্ধের ময়দানে শত্রুপক্ষ রাশিয়াকে ভয় পায়, সেজন্যে যুদ্ধে ব্যবহার উপযোগী সাত টন ওজনের বিশাল রোবট গাড়িও তৈরি করবে এই সংস্থা।

সংস্থার দাবি, এটাই বিশ্বের সবথেকে বড় রোবট ট্যাংক হতে চলেছে। ইতিমধ্যে এই ট্যাংক তৈরির কাজ চলছে। একেবারে গোপনে তৈরি হচ্ছে এই ট্যাংক। মনে করা হচ্ছে খুব শীঘ্রই এই রোবট ট্যাংক প্রকাশ্যে আসবে। জানা গেছে, এই ট্যাংক সম্পূর্ণভাবে চলবে চালক ছাড়া। সমরাস্ত্রেও সুসজ্জিত থাকবে এই ট্যাংক। শত্রু মোকাবিলায় এই ট্যাংক সম্পূর্ণভাবে তৈরি।

রাশিয়ান সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক, ট্যাংকে মেশিনগান এবং ট্যাংক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র থাকবে। দূর থেকে নিয়ন্ত্রিত এই ট্যাংক যুদ্ধে যাওয়া সেনাদের সহযোগিতা করবে। অবশ্য এই সম্পর্কে বিস্তারিত কোনও বিবরণ এখনও প্রকাশ করা হয়নি। নিরাপত্তার কারণেই বিশ্বের সবথেকে বড় রোবট ট্যাংকের বিষয়ে আর কিছু জানানো হয়নি। তবে মনে করা হচ্ছে, এটি মার্কিন সেনাবাহিনীর আট চাকার সাঁজোয়া যান এম-১১২৬ স্ট্রাইকার আইসিভির সম মানের হবে।

অবশ্য বিশালদেহী এই রোবট ট্যাংকের পূর্বসূরি হল কালাশনিকভের তৈরি বিএএস-গ১জি-সোরাতনিক। এতে একটি মেশিনগান, একটি ভারি মেশিনগান, গ্রেনেড লাঞ্চার এবং তিন মাইল পাল্লার ৮টি কোরনেট গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্র বসানো আছে।

এটি সর্বোচ্চ ঘণ্টায় ২৫ মাইল বেগে চলতে পারে। একে-৪৭ অ্যাসাল্ট রাইফেল তৈরির মাধ্যমে বিশ্বখ্যাতি অর্জন করে কালাশনিকভ। এই ধরণের রাইফেল বিশ্বে অনন্ত ১০ কোটি তৈরি হয়েছে বলে ধারণা করা হয়। অবশ্য, অস্ত্র তৈরির পাশাপাশি স্মারক দ্রব্য, ভিডিও গেমসসহ নানা পণ্য তৈরি করেছে কালাশনিকভ।

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...
  • 33
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!