শিবচরে স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জনের মৃত্যু

শিবচরে স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
মাদারীপুরের শিবচরে স্পিডবোট দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে আরও পাঁচজনকে। নিহতদের মধ্যে ২৪ জনের লাশ নদীর পাড়ে রয়েছে। দু’জন হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যাওয়ায় সেখানেই তাদের লাশ রাখা হয়েছে।

শিবচর থানার পুলিশ সুত্রে যানা যায়, সোমবার (০৩ মে) সকালে থেমে থাকা বালুবোঝাই বাল্কহেডে স্পিডবোটের অনিয়ন্ত্রিত ধাক্কায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। শিমুলিয়া থেকে সোমবার সকাল পৌনে ৭টায় স্পিডবোটটি ছেড়ে আসে। এ সময় কাঁঠালবাড়ীর পুরাতন ঘাটে থেমে থাকা বালুবোঝাই একটি বাল্কহেডে ধাক্কা দিয়ে ডুবে যায় স্পিডবোটটি। এ সময় সব যাত্রী পানিতে পড়ে যান। পরে নদী থেকে একে একে ২৪টি লাশ উদ্ধার করা হয়। ৬ জনকে জীবিত উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে আরও দুজনের মৃত্যু হয়।



দুর্ঘটনার খবর পেয়ে বিভিন্ন স্থান থেকে স্বজনরা মাদারিপুরের শিবচরে আসতে শুরু করেছে। তারা স্বজনদের লাশ চিহ্নিত করে কান্নায় ভেঙে পড়ছেন। স্বজনদের কান্নায় ভারি হয়ে উঠেছে এ এলাকার আকাশ-বাতাস।

ফায়ার সার্ভিসের দেওয়া তথ্যমতে, স্পিডবোটটির বেপরোয়া গতির কারণে ঘাটের কাছে এসে নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারেনি। এ সময় ঘাটে নোঙর করে রাখা একটি বাল্কহেডের ওপর আছড়ে পড়ে স্পিডবোটটি। মূলত দ্রুত গতির কারণেই এত বেশি হতাহত হয়েছে বলে জানান তিনি।

উদ্ধার অভিযানে অংশ নেয়া মাওয়া কোস্টগার্ড কর্মকর্তা রেদোয়ান বলেন, উদ্ধারকৃত ও নিহতদের কারো গায়ে লাইফ জ্যাকেট পাওয়া যায়নি। স্পিডবোট শিমুলিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়ার তথ্য পাওয়া গেলে ঠিক কখন নাগাদ ও কোন পয়েন্ট থেকে ছেড়ে গেছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন দুর্ঘটনার স্থান পরিদর্শন করেছেন। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় যাদের মৃত্যু হয়েছে জেলা প্রশাসন থেকে প্রত্যেক পরিবারকে ২০ হাজার টাকা সহায়তা দেয়া হবে।

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!