শ্যালিকাকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের অভিযোগ দুলাভাইয়ের বিরুদ্ধে

শ্যালিকাকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের অভিযোগ দুলাভাইয়ের বিরুদ্ধে

নিউজ ডেস্ক :
গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়িতে গার্মেন্ট শ্রমিক শ্যালিকাকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের অভিযোগ উঠেছে দুলাভাইয়ের বিরুদ্ধে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে কোনাবাড়ির জরুন থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার হওয়া দুলাভাই মমিন মণ্ডল ওরফে মিশু (২৮) বগুড়ার ধনুট থানার চড়পাড়া গ্রামের নূর হোসেনের ছেলে।

জানা গেছে, মমিন মণ্ডল শ্যালিকাসহ স্ত্রীকে নিয়ে কোনাবাড়ির জরুন দশতলা এলাকায় আব্দুল আলীমের বাড়িতে ভাড়া থাকেন। তারা তিনজনই স্থানীয় একটি গার্মেন্টে চাকরি করেন। গত ১ ডিসেম্বর বিকেলে স্ত্রী বাসায় না থাকার সুযোগে একা পেয়ে খালি ঘরে শ্যালিকাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে মমিন মণ্ডল। এ সময় গোপনে ধর্ষণের ঘটনাটি মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করেন।

পরবর্তীতে ওই ভিডিও প্রকাশের হুমকি দিয়ে আরও কয়েকবার ধর্ষণ করে মমিন। আবারও ধর্ষণ করতে চাইলে নিরুপায় হয়ে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোনাবাড়ি থানায় নারী শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন নির্যাতিতা শ্যালিকা।

কোনাবাড়ি থানার এসআই মো. শাখাওয়াত ইমতিয়াজ জানান, মামলার পর অভিযুক্ত মমিন মন্ডলকে বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ধর্ষণ ও ভিডিও ধারনের বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

পোষ্টটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করতে পারেন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!