ঢাকা , শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

একদিনে ৭৬ শতাংশ শেয়ারের দর কমেছে

অনলাইন নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটঃ ০৫:৫৫:৫৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪
  • / ৬২০ বার পঠিত

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) গতকাল ৭৬ দশমিক ২৯ শতাংশ শেয়ারের দর কমেছে। পাশাপাশি এদিন এক্সচেঞ্জটির সার্বিক সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ১ শতাংশ এবং দৈনিক লেনদেন কমেছে ২০ দশমিক ৮ শতাংশ। দেশের আরেক শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) গতকাল সূচক ও লেনদেন কমেছে।

 

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গতকাল লেনদেন শুরুর পরই শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়তে থাকে, যা শেষ পর্যন্ত বজায় ছিল। গতকাল সার্বিক সূচক ডিএসইএক্স সূচক ৫৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৫২৭ পয়েন্টে, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ৫ হাজার ৫৮৬ পয়েন্ট। ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে নির্বাচিত কোম্পানির সূচক ডিএস-৩০ গতকাল দিন শেষে ১৪ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৯৭৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের কার্যদিবসে ছিল ২ হাজার ৯৯২ পয়েন্ট।

 

শরিয়াহ সূচক ডিএসইএস গতকাল দিন শেষে ১৩ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ২১২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ১ হাজার ২২৬ পয়েন্টে। গতকাল সূচকের পতনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা ছিল ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানি (বিএটিবিসি), স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, রেনাটা, বীকন ফার্মাসিউটিক্যালস ও লাফার্জহোলসিমের শেয়ারের।

 

গতকাল ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৫২৬ কোটি টাকা, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ৬৬৪ কোটি টাকা। গতকাল এক্সচেঞ্জটিতে লেনদেন হওয়া ৩৯৫টি কোম্পানি, মিউচুয়াল ফান্ড ও করপোরেট বন্ডের মধ্যে দিন শেষে দর বেড়েছে ৩১টির, কমেছে ৩০১টির আর অপরিবর্তিত ছিল ৩৩টি সিকিউরিটিজের বাজারদর।

 

খাতভিত্তিক লেনদেনচিত্রে দেখা যায়, গতকাল ডিএসইর মোট লেনদেনের ১৭ দশমিক ৪ শতাংশ দখলে নিয়ে শীর্ষে ছিল ওষুধ খাত। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩ দশমিক ১ শতাংশ দখলে ছিল বস্ত্র খাতের। ৭ দশমিক ৮ শতাংশ লেনদেনের ভিত্তিতে তৃতীয় অবস্থানে ছিল খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাত। মোট লেনদেনের ৭ দশমিক ৬ শতাংশের ভিত্তিতে চতুর্থ অবস্থানে ছিল প্রকৌশল খাত।

 

ডিএসইতে গতকাল জ্বালানি, জীবন বীমা ও মিউচুয়াল ফান্ড বাদে বাকি সব খাতের শেয়ারেই নেতিবাচক রিটার্ন এসেছে। এর মধ্যে কাগজ ও মুদ্রণ খাতে ২ দশমিক ৬ শতাংশ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতে ২ দশমিক ৪ ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ২ দশমিক ৩ শতাংশ নেতিবাচক রিটার্ন এসেছে।

 

অন্যদিকে সিএসইর নির্বাচিত সূচক সিএসসিএক্স গতকাল ৬২ পয়েন্ট কমে ৯ হাজার ৬৭০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইর সব শেয়ারের সূচক সিএএসপিআই গতকাল ১০৫ পয়েন্ট কমে ১৬ হাজার ৬০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

 

এদিন এক্সচেঞ্জটিতে লেনদেন হওয়া ২৩৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩২টির, কমেছে ১৭৪টির আর অপরিবর্তিত ছিল ২৮টির বাজারদর। গতকাল সিএসইতে ১৩ কোটি ৬০ লাখ টাকার সিকিউরিটিজ হাতবদল হয়েছে, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ১৪ কোটি ৭১ লাখ টাকা।

অর্থআদালতডটকম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া অন্য কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

error: Content is protected !!

একদিনে ৭৬ শতাংশ শেয়ারের দর কমেছে

আপডেটঃ ০৫:৫৫:৫৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) গতকাল ৭৬ দশমিক ২৯ শতাংশ শেয়ারের দর কমেছে। পাশাপাশি এদিন এক্সচেঞ্জটির সার্বিক সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ১ শতাংশ এবং দৈনিক লেনদেন কমেছে ২০ দশমিক ৮ শতাংশ। দেশের আরেক শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) গতকাল সূচক ও লেনদেন কমেছে।

 

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গতকাল লেনদেন শুরুর পরই শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়তে থাকে, যা শেষ পর্যন্ত বজায় ছিল। গতকাল সার্বিক সূচক ডিএসইএক্স সূচক ৫৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৫২৭ পয়েন্টে, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ৫ হাজার ৫৮৬ পয়েন্ট। ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে নির্বাচিত কোম্পানির সূচক ডিএস-৩০ গতকাল দিন শেষে ১৪ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৯৭৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের কার্যদিবসে ছিল ২ হাজার ৯৯২ পয়েন্ট।

 

শরিয়াহ সূচক ডিএসইএস গতকাল দিন শেষে ১৩ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ২১২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ১ হাজার ২২৬ পয়েন্টে। গতকাল সূচকের পতনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা ছিল ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানি (বিএটিবিসি), স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, রেনাটা, বীকন ফার্মাসিউটিক্যালস ও লাফার্জহোলসিমের শেয়ারের।

 

গতকাল ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৫২৬ কোটি টাকা, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ৬৬৪ কোটি টাকা। গতকাল এক্সচেঞ্জটিতে লেনদেন হওয়া ৩৯৫টি কোম্পানি, মিউচুয়াল ফান্ড ও করপোরেট বন্ডের মধ্যে দিন শেষে দর বেড়েছে ৩১টির, কমেছে ৩০১টির আর অপরিবর্তিত ছিল ৩৩টি সিকিউরিটিজের বাজারদর।

 

খাতভিত্তিক লেনদেনচিত্রে দেখা যায়, গতকাল ডিএসইর মোট লেনদেনের ১৭ দশমিক ৪ শতাংশ দখলে নিয়ে শীর্ষে ছিল ওষুধ খাত। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩ দশমিক ১ শতাংশ দখলে ছিল বস্ত্র খাতের। ৭ দশমিক ৮ শতাংশ লেনদেনের ভিত্তিতে তৃতীয় অবস্থানে ছিল খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাত। মোট লেনদেনের ৭ দশমিক ৬ শতাংশের ভিত্তিতে চতুর্থ অবস্থানে ছিল প্রকৌশল খাত।

 

ডিএসইতে গতকাল জ্বালানি, জীবন বীমা ও মিউচুয়াল ফান্ড বাদে বাকি সব খাতের শেয়ারেই নেতিবাচক রিটার্ন এসেছে। এর মধ্যে কাগজ ও মুদ্রণ খাতে ২ দশমিক ৬ শতাংশ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতে ২ দশমিক ৪ ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ২ দশমিক ৩ শতাংশ নেতিবাচক রিটার্ন এসেছে।

 

অন্যদিকে সিএসইর নির্বাচিত সূচক সিএসসিএক্স গতকাল ৬২ পয়েন্ট কমে ৯ হাজার ৬৭০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইর সব শেয়ারের সূচক সিএএসপিআই গতকাল ১০৫ পয়েন্ট কমে ১৬ হাজার ৬০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

 

এদিন এক্সচেঞ্জটিতে লেনদেন হওয়া ২৩৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩২টির, কমেছে ১৭৪টির আর অপরিবর্তিত ছিল ২৮টির বাজারদর। গতকাল সিএসইতে ১৩ কোটি ৬০ লাখ টাকার সিকিউরিটিজ হাতবদল হয়েছে, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ১৪ কোটি ৭১ লাখ টাকা।